মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কিভাবে সেবা পাবেন

বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলাদের দারিদ্র ও অসহায়ত্বের কথা বিবেচনা করে তাদের দুঃখ-দুর্দশা দূর করার জন্য সরকার বিধবা ভাতা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলাদের ভাতা কর্মসূচি পরিচালনা করে আসছে। এ কর্মসূচির মাধ্যমে ভাতা প্রাপ্ত বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলাদের প্রতিমাসে ১৫০ টাকা করে ভাতা  দেওয়া হয়।

 

  • বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলাদের চিহ্নিত করার মানদন্ড 
  • বিধবা বলতে তাদেরকে বোঝানো হয় যাদের স্বামী মৃত।
  • স্বামী পরিত্যক্তা বলতে তাদের বোঝানো হয় যারা স্বামী কর্তৃক তালাকপ্রাপ্ত বা অন্য যে কোন কারণে কমপক্ষে ২ বছর যাবৎ স্বামীর সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন বা একত্রে বাস করেন না।

 

বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলা ভাতা পাবার জন্য প্রার্থীর যোগ্যতা 

  • সবচেয়ে বেশি বয়সী অসহায় ও দুঃস্থ, বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা মহিলাকে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়।
  • যিনি দুঃস্থ, অসহায়, প্রায় ভূমিহীন, বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা এবং যার ১৬ বছর বয়সের নিচে ২টি সন্তান রয়েছে তিনি ভাতা পাবার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পান।
  • দুঃস্থ, দরিদ্র, বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তাদের মধ্যে যারা প্রতিবন্ধী ও অসুস্থ তারা ভাতা পাবার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পান।

 

বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলা ভাতা পাবার জন্য প্রার্থীর অযোগ্যতা 

  • যিনি সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মজীবী।
  • যিনি উত্তরাধিকার সূত্রে পেনশনের সুবিধা পেয়ে থাকেন।
  • যিনি দুঃস্থ মহিলা হিসেবে ভিজিডি কার্ডধারী।
  • যিনি অন্য কোনভাবে নিয়মিত সরকারি অনুদান পেয়ে থাকেন।
  • যিনি কোন বেসরকারি সংস্থা/সমাজ কল্যাণমূলক অনুদান পেয়ে থাকেন।
  • যিনি শহর ও পৌর এলাকার বাসিন্দা।
  • যিনি পেশাগতক্ষেত্রে দিনমজুর, ঝি-এর কাজ করেন এবং ভবঘুরে।
  • যিনি বয়স্ক ভাতা গ্রহীতা।

 

 

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি 

  • বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলাদের বাছাই করার জন্য ওয়ার্ড কমিটি দরখাস্ত আহবান করে এবং এই বিষয়ে সাধারণ মানুষকে জানায়।
  • বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলা ভাতা গ্রহণে আগ্রহী আবেদনকারীগণ ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি সদস্য-সচিব বরাবর আবেদনপত্র পেশ করেন।
  • বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলা ভাতা প্রদানের জন্যে প্রার্থী বাছাইয়ের লক্ষ্যে ওয়ার্ড পর্যায়ে এবং উপজেলা পর্যায়ে একটি করে কমিটি দায়িত্ব পালন করে।
  • উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা উপজেলা কমিটি কর্তৃক চুড়ান্তভাবে অনুমোদিত ভাতা প্রাপকের তালিকা এবং প্রয়োজনীয় উপকরণ ও অন্যান্য তথ্য উপজেলা হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তার কাছে পাঠান।
  • কোন বয়স্ক ভাতা প্রাপকের মৃত্যু হলে তার জায়গায় একই ওয়ার্ডের অগ্রাধিকার ক্রম অনুযায়ী অপেক্ষমান তালিকা হতে প্রার্থী নির্বাচিত হয়ে ভাতা গ্রহণের জন্য অন্তর্ভুক্ত হন।
  • তিনি তালিকাভুক্ত হবার দিন থেকে ভাতা গ্রহণের জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হন।
  • ওয়ারিশ হিসেবে কাউকে ভাতা প্রদান করা হয় না।

 

 

ভাতা পরিশোধের পদ্ধতি 

  • বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলাদের ভাতা প্রদানের জন্য বাজেটে বরাদ্দ অর্থ সমান ২ কিস্তিতে অর্থ মন্ত্রণালয় অবমুক্ত করে। তারপর সমাজসেবা অধিদপ্তর ওই অর্থ সংশ্লিষ্ট ব্যাংকে ন্যস্ত করে।
  • তফসিলী ব্যাংকের মাধ্যমে বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলাদের ভাতা প্রদান করা হয়। উপজেলা পর্যায়ের বাইরে ইউনিয়ন পর্যায়ে তফসিলী ব্যাংক থাকলে তার মাধ্যমেও ভাতা পরিশোধ করা হয়।
  • যারা ভাতা পাবেন তাদের ছবিতে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার/প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা/উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার স্বাক্ষরসহ একটি পাশবই থাকে। উপজেলা হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা এই বই ইস্যু করে থাকেন।
  • উপজেলা হিসাব রক্ষণ অফিস ও সমাজসেবা কর্মকর্তার অফিস বয়স্ক ভাতা প্রাপকের নাম, ছবি ও নমুনা স্বাক্ষরসহ রেজিস্ট্রার সংরক্ষণ করেন।
  • উপজেলা হিসাব রক্ষণ অফিস ও সমাজসেবা কর্মকর্তার অফিস বয়স্ক ভাতা প্রাপকের নাম, ছবি ও নমুনা স্বাক্ষরসহ রেজিস্ট্রার সংরক্ষণ করেন।
  • শারীরিকভাবে অক্ষম কিংবা পর্দানশীন হবার কারণে ভাতা গ্রহণের জন্য কেউ  সশরীরে উপস্থিত হতে না পারলে তিনি তার পক্ষে একজনকে মনোনয়ন দান করবেন। মনোনয়ন প্রাপ্ত ব্যক্তির পরিচয়পত্রে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার/প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা/উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দ্বারা সত্যায়িত (সীলসহ)ছবি থাকবে। মনোনীত ব্যক্তি ভাতা গ্রহণের সময় ভাতাপ্রাপ্ত ব্যক্তি জীবিত আছেন বলে স্থানীয় প্রতিনিধি (ওয়ার্ড মেম্বার/ চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদ) এর সনদপত্র পেশ করবেন।
  • বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলাদের প্রতিমাসে ভাতা প্রদান করা হয়। তবে কেউ চাইলে বছরে একবার বা ত্রৈমাসিক ভিত্তিতেও তুলতে পারেন।
  • বয়স্ক ভাতা গ্রহীতা মৃত্যুবরণ করলে সে সংবাদ সমাজসেবা কর্মকর্তা স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এর নিকট হতে মৃত্যৃ সনদপত্র সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সকল কর্তৃপক্ষ ও কার্যালয়কে অবহিত করেন।

 

সচরাচর জিজ্ঞাসা 

প্রশ্ন ১: বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলারা ভাতা পাওয়ার জন্য কার কাছে আবেদন করবেন?

উত্তর:ভাতা গ্রহণে আগ্রহী  বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলারা ইউনিয়ন ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি সদস্য-সচিব বরাবর আবেদনপত্র পেশ করবেন।

প্রশ্ন ২: প্রতি মাসে কত টাকা ভাতা দেওয়া হয়?

উত্তর: প্রতিমাসে ১৫০ টাকা করে ভাতা  প্রদান করা হয়।

প্রশ্ন ৩: কিভাবে ভাতা প্রদান করা হয?

উত্তর:তফসিলী ব্যাংকের মাধ্যমে বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলাদের ভাতা প্রদান করা হয়। উপজেলা পর্যায়ের বাইরে ইউনিয়ন পর্যায়ে তফসিলী ব্যাংক থাকলে তার মাধ্যমেও ভাতা পরিশোধ করা হয়।